‘জামাই মেরে ফেলা’ চাকমাদের লোক কাহিনী।

জামাই মারণীর বাংলা ভার্সন।

“জামাই মেরে ফেলা”
এককালে এক রাজা ছিল।তাঁর ছিল এক সুন্দরী রাজ কন্যা।কন্যার সৌন্দর্য্যের খবর দেশ-বিদেশে ছড়িয়ে পড়লো।তাঁকে বিয়ে করবার জন্য বিভিন্ন দেশের রাজপুত্র মধ্যে প্রতিযোগিতা শুরু হলো। পরে রাজ ঠিক করে দিলেন,একটি উঁচু পাহাড়ের উপর থেকে ঝাঁপ দিয়ে নদীতে পড়ে সাঁতার কেটে যে নদী পার হয়ে অপর পারে উঠতে পারবে তার কাছে মেয়েকে দিবেন। অনেকেই ঝাঁপ দিয়ে মরলো।পরে খুব সুন্দর এক রাজপুত্র রাজকন্যাকে পাবার জন্য ঝাঁপ দিতে এলো।রাজা তাকে দেখে ঝাঁপ দিতে নিষেধ করলেন। পরের দিন ঝাঁপ দেয়ার কথা হলো।রাজা রাত্রিতে স্বপ্নে দেখলেন, এক বুড়ী তাঁকে বুদ্ধি শিখিয়ে দিচ্ছে :’বুকে পিঠে ও বগলে তুলার বালিশ ও হাতে একটি ছাতা ধরে সেই রাজপুত্র’কে ঝাঁপ দিতে বলো। এই বলে বুড়ী অদৃশ্য হলো।সকালে ঘুম থেকে উঠে রাজপুত্র রাজার কথামত ঝাঁপ দিল।ঝাঁপ দিয়ে সে নদীতে পড়ে সাঁতার কেটে অপর পারে উঠে গেলেন। রাজা খুব খুশি হলেন।পরে রাজপুত্রের সাথে রাজকন্যাকে বিয়ে দিলেন।রাজ্য সবাই সুখী হয়ে দিন কাটাতে লাগলেন।

চাকমাদের রুপকথার কাহিনী মানুষের হৃদয়ে
তৃপ্তি দেয়।

ছবি;কর্ণফুলীনদী